খেলার জন্য ‘প্লেবয়’ এর যে লোভনীয় অফার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন অ্যালিসা

গতির পাশাপাশি ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে রূপের আগুন ছড়ান অ্যালিসা স্মিথ। এই জার্মান তরুণীকে বলা হচ্ছে সাম্প্রতিক কালের বিশ্বের ‘সবচেয়ে আবেদনময়ী অ্যাথলিট’।

জার্মানির ওয়ার্ম শহরে অ্যালিসিয়ার জন্ম ১৯৯৮ সালে। মাঠের বাইরেও ২১ বছর বয়সি এই সুন্দরীর অনুরাগীর সংখ্যা আকাশছোঁয়া।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিয়মিত নিজের ছবি দেন অ্যালিসা। ইনস্টাগ্রামে তার ভক্তসংখ্যা সোয়া ৬ লাখেরও বেশি।
২০১৭ সালে বার্লিনে অনূর্ধ্ব ২০ ইউরোপিয়ান অ্যাথলেটিকসে দেশকে ৪x৪০০ মিটার রিলে রেসে রুপা এনে দিয়েছিলেন তিনি।

সেই সময় থেকেই তাকে নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়। যতটা না খেলার জন্য, তার থেকেও বেশি আলোচনা হয় তার রূপের জন্য।

তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চিত হলেও মডেলিং করার কথা ভাবেননি অ্যালিসা। ফিরিয়ে দিয়েছেন ‘প্লেবয়’ ম্যাগাজিনের মডেল হওয়ার অফার।

গত বছর সুইডেনে অনূর্ধ্ব ২৩ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ৪x৪০০ মিটার রিলে রেসে দেশকে ব্রোঞ্জ এনে দেন অ্যালিসা। ইতোমধ্যেই তিনি একটি নামী ক্রীড়া সরঞ্জাম প্রস্তুতকারী সংস্থাকে স্পনসর হিসেবে পেয়ে গেছেন।

তাকে নিয়ে ভক্তদের মাতামাতি করার কারণেও অ্যালিসা বিস্মিত। কেন তাকে বিশ্বের সেক্সিয়েস্ট অ্যাথলিট বলা হয়, তারও কোনও ব্যাখ্যা তিনি খুঁজে পাননি বলে একাধিকবার দাবি করেছেন।

অ্যালিসা জানিয়েছেন, এই প্রজন্মের আর পাঁচটা সাধারণ তরুণীর মতো তারও নিজের ছবি শেয়ার করতে ভাল লাগে। তবে তিনি মনে করেন, তিনি ‘সেক্সিয়েস্ট’ অ্যাথলেট নন।

তবে তার অনুরাগীদের সম্ভবত হতাশ হতে হবে টোকিও অলিম্পিকে। ভাবা হয়েছিল, অ্যালিসাই হয়ে উঠবেন অলিম্পিকের অন্যতম আকর্ষণ। কিন্তু কঠোর অনুশীলন ও প্রস্তুতি সত্ত্বেও তিনি এখনও পর্যন্ত অলিম্পকের জন্য জার্মানি দলে নির্বাচিত হতে পারেননি।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here