চিতাবাঘের মাংস দিয়ে বনভোজন

ভারতের আসামে বাঘের মাংস দিয়ে বনভোজন করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বাঘের মাংস খেয়ে আগেই আলোচনায় এসেছে আসামের অটল রঙঢালি এলাকার বাসিন্দারা। ‘বাঘখেকো’ তকমা পেয়েছেন তারা। আবারও পূর্ণবয়স্ক চিতাবাঘকে পিটিয়ে মেরে তার মাংস ওই এলাকার মানুষ। পশুপ্রেমীরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

গ্রামবাসীরা জানিয়েছে, পাঁচ জন মানুষের উপর হামলা চালিয়েছিল সেই চিতাবাঘটি। এর পর নদী পেরিয়ে আরেক গ্রামে ঢুকেও কিছু মানুষের উপর হামলা চালায়। নদী পেরিয়ে দ্বিতীয় গ্রামে ঢোকার পর চিতাবাঘটিকে ঘেরাও করে গ্রামবাসীরা। ইট, পাথর, লাঠি দিয়ে পিটিয়ে চিতাবাঘটিকে মেরে ফেলে তারা। এর পর শুরু হয় চিতাবাঘের মাংস রান্না করে খাওয়ার আয়োজন। কেউ কেউ আবার নৃশংস এই ঘটনার ভিডিও করে রাখেন।

এ ঘটনায় গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ। দোষীদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। পুলিশ জানিয়েছে, বছর তিনেক আগেও এই এলাকায় চিতাবাঘ মেরে মাংস খেয়েছিল গ্রামবাসীরা।

আসাম-নাগাল্যান্ড সীমানায় এর আগে হাতি মেরে মাংস খাওয়ার ঘটনা শোনা গেছে। গণ্ডার, বিড়ালের মতো পশু মেরে তাদের মাংস রান্না করে খেয়েছেন কিছু মানুষ।
সূত্র: জিনিউজ

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here