২২ বছরের তরুণের প্রেমে হাবুডুবু ৬০ বছরের দাদি

ভালোবাসার নতুন দৃষ্টান্ত তৈরি হলো খোদ তাজমহলেরই শহর আগ্রায়। যার রূপকার দেশটির উত্তরপ্রদেশের প্রকাশ নগরের বাসিন্দা ২২ বছরের এক যুবক। তিনি প্রেমে পড়েছেন ৬০ বছরের এক মহিলার। তাও কী যে সে প্রেম!

ওই নারীকে ছাড়া জীবন কাটাতে পারবেনই না বলেই জানিয়ে দিয়েছেন ওই যুবক। তা বলে ৬০ বছরের মহিলা, যার স্বামী, সাত সন্তান, এমনকী সাতজন নাতি নাতনিও রয়েছেন! তার সঙ্গে এভাবে প্রেমের পরিণতি কী? কিন্তু প্রেমে পড়লে পরিণতি নিয়ে অবশ্য ভাবতে নারাজ ওই যুবক। তিনি এখন ওই বৃদ্ধার প্রেমেই কার্যত হাবুডুবু খাচ্ছেন।

অন্যদিকে ওই বৃদ্ধাও সাফ জানিয়েছেন তিনি ওই ছেলেকেই বিয়ে করতে চান। এমনকী তার জন্য তিনি সব বন্ধন কাটাতেই প্রস্তুত। তবে বিষয়টি শুধুই প্রেমেই আটকে থাকেনি। মাঝেমধ্যেই ঘুরতেও যান যুগলে। আর সাত নাতি-নাতনির ‘দাদি’ স্বপ্ন দেখেন তার ২২ বছরের প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাঁধারও। আর তাতেই ঘটে বিপত্তি। ‘দাদা’ ঘটনার কথা জানতে পেরেই রীতিমত গোটা পরিবার নিয়ে ওই দু’জনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান।

স্বাভাবিক নিয়মেই তাদের এ হেন আচরণে আপত্তি তোলেন প্রতিবেশীরাও। এমনকি বিষয়টি থানা পর্যন্তও গড়ায়। ওই যুবকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন মহিলার স্বামী ও ছেলে। তদন্তের নিয়মে আটকও করা হয় প্রেমিক যুবকটিকে। এ যেন কোনো রোমান্টিক সিনেমার দৃশ্য।

আর সেই দৃশ্যে ‘হিরো’কে থানায় আটকে রাখলে রিল লাইফে আকছার ছুটে আসেন ‘হিরোইন’। এক্ষেত্রেও ঠিক তাই ঘটল। ‘দাদি’ও তার প্রেমিককে বাঁচাতে ছুটে আসেন থানায়। পুলিশের সামনে নিজেদের প্রেমকাহিনীও শোনান অকপটে। জানান, তারা বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেলেছেন। অনুরোধ করেন যুবককে যেন জামিন দেয়া হয়।

জানা গেছে, পুলিশ তার আবেদনে সাড়া দিয়ে প্রেমিক যুবকটিকে জামিন দিয়ে দেয়। তবে পাশাপাশি, দু’জনকেই এই অসমবয়সী প্রেমের ইতি টানার পরামর্শও দেয়।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here