কুমারখালীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিকাকে ধর্ষণ

লিপু খন্দকার ঃ উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের ভালুকা গ্রামের মৃত আবের মন্ডলের ছেলে রাসেদের বিরুদ্ধে যদুবয়রা ইউনিয়নের বল্লভপুর গ্রামের সামছুল হোসেনের মেয়ে শারমিন আক্তারকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শারমিন আক্তারের ভাষ্য অনুযায়ী জানা যায়, প্রায় তিন বছর পূর্বে রাসেদ তার চাচাত ভাই এনামুলকে দিয়ে তার মোবাইল নাম্বার নেয় এবং মোবাইল ফোনে কথোপকথনের মাধ্যমে রাসেদের সাথে তার প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে ওঠে । রাসেদ তাকে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেয় কিন্তু শারমিন বিয়ের আগে অনৈতিক সম্পর্কে জড়াবেনা বলে তাকে জানিয়ে দেয়। অবশেষে গত ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে রাসেদ তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কুমারখালী চড়াইকোল রেলগেট সংলগ্ন নৃত্য শিল্পী আলালের বাড়িতে এসে তাকে বউ পরিচয় দিয়ে ঐ বাড়িতে ২দিন ২ রাত অবস্থান করে এবং একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। শারমিন জানায় আলালের বাড়িতে অবস্থানকালে রাসেদ তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক সৃষ্টি করার চেষ্টা করলে সে বিয়ে করার কথা বললে আল্লাহকে সাক্ষী রেখে বিয়ে করে এবং ফেব্রুয়ারী মাসে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে করবে বলে জানায়। আলালের বাড়ি থেকে ফিরে আসার পর রাসেদ শারমিনের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এবং শারমিন বিয়ে করার জন্য চাপ সৃষ্টি করলে রাসেদ এলাকা থেকে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে নৃত্য শিল্পী আলালকে তার বাড়িতে রাসেদ ২ রাত ২ দিন অবস্থান করেছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে জানায় রাসেদ তার পূর্ব পরিচিত দীর্ঘদিন যাবত তার সাথে পারিবারিক সম্পর্ক সেই সুবাদে গত ডিসেম্বর মাসে রাসেদ তার বাড়িতে এসে বলে বউকে নিয়ে এসেছে তাদের বাড়িতে বেড়াতে এবং ২ দিন তাদের বাড়িতে শারমিনকে নিয়ে অবস্থান করে।

রাসেদ পলাতক এবং তার মুঠোফোন বন্ধ থাকার কারনে রাসেদের মা মমতাজ বেগম ও কুশলিবাসা বিবি আছিয়া বালিকা মাদ্রাসার শিক্ষক ইয়ারুল ইসলামের নিকট রাসেদকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে জানান বিষয়টি পুরোটাই মিথ্যা ও বানোয়াট সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য মেয়ে পক্ষ তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে।

এবিষয়ে কুমারখালী থানায় রাসেদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা যায়।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here