কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে জেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযানে ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা

লিপু খন্দকার ঃ আজ ৮ জানুয়ারী কুমারখালীর যদুবয়রাতে জেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের যৌথ অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় চার ইট ভাটা মালিককে জ্বালানী কাঠ পোড়ানোর অপরাধে পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় এবং একটি ড্রাম চিমনির ইট ভাটা উচ্ছেদ করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে কুমারখালীর যদুবযরার কেশবপুরে এস আর বি ইট ভাটাকে ২ লক্ষ, ট্রি জে বি মালিককে ১ লক্ষ ,সাগর ইট ভাটা মালিককে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা ও স্ক্যাবিটর দিয়ে ভাটা ধ্বংস ও সৈনিক ব্রিকসকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। যদুবয়রাতে অধিকাংশ ইট ভাটা অবৈধ ড্রাম চিমনির হওয়ায় হাইকোর্টের রিট দেখিয়ে ভাটা ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা পেলেও জ্বালানি হিসাবে কাঠ পোড়ানোর অপরাধে তাদেরকে জরিমানা করা হয়।

উক্ত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের তিন জন বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব পার্থ প্রতিম শীল ও ইসাহক আলী ও জনাব শাহীনুর আক্তার। মোবাইল কোর্টে আরও উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক জনাব মোহাম্মদ আতাউর রহমান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা কার্যালয়ের পরিদর্শক জনাব কমল কুমার বর্মন সহ র‍্যাব, পুলিশ ও সাংবাদিক বৃন্দ।

এদিকে আর এ বি ব্রিকস ও মহুয়া ব্রিকস অবৈধ ভাটার আওতাভুক্ত হলেও এই দুই ভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা হয়নি। এবিষয়ে আর এ বি ব্রিকসের স্বত্বাধিকারীরা আমিরুল ইসলাম বাবু মুঠোফোনে বলেন আগেই পরিবেশ অধিদপ্তরে যোগাযোগ করার কারনে তাদের দুই ভাটায় অভিযান হয়নি। পরিবেশ অধিদপ্তরে বিষয়টি জানানো হলে তারা অতিশীঘ্র অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানান।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পার্থ প্রতিম শীল জানান এই সকল অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here