বিএনপি নেতা ও প্রধান শিক্ষকের জালিয়াতির কারণে এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারেনি ৩ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আজ ৩রা ফেব্রুয়ারী সারাদেশ জুড়ে একযুগে শুরু হয়েছে এস.এস.সি ও সমমানের পরীক্ষা, সারাদেশে এবার মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২১ লক্ষ ৩৫ হাজার। এস.এস.সি পরীক্ষার প্রথম দিনে রাজধানী ঢাকার বেশকিছু পরীক্ষা কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেল কেন্দ্র গুলো ছিল নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পরীক্ষা শেষ হতে না হতেই প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রের মেইন ফটকে অভিভাবকদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।

এদিকে রাজধানী ঢাকার মিরপুরের একজন প্রভাবশালী বিএনপি নেতা ও গ্রীণ বাংলা আইডিয়াল স্কুল নামের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানের জালিয়াতির কারণে আজ এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেনি গ্রীণ বাংলা আইডিয়াল স্কুল নামের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তিন শিক্ষার্থী।

ভোক্তভোগী এক শিক্ষার্থীর মা জানা সকাল ৬টায় তিন শিক্ষার্থীর বাবার কাছে স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান ফোন করে বলেন যে আপনাদের সন্তানরা পরীক্ষা দিতে পারবে না, আমি এডমিট কার্ড নিতে পারি নাই। এরপরে সকালে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে গিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে ঢুকতে না এসময় শিক্ষার্থীরা চিৎকার করে কাঁন্নায় শুরু করে তাদের কাঁন্না শুনে পুরো এলাকার লোকজন জমাট হয়ে যাওয়ার পরে বিষয়টি পল্লবী থানায় অবগত করা হলে স্কুলের প্রধান শিক্ষক এলাকার লোকজন নিয়ে গিয়ে থানায় বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়
মিরপুর সেকশন ১২ ডি ব্লক, ১৭ নং রোডের একটি বিল্ডিং এ প্রতিষ্ঠিত গ্রীণ বাংলা আইডিয়াল স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানের পরিচালায় স্কুলটি একটি ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠান।

স্কুটি বেসরকারি ভাবে অনুমোদন নেওয়া প্লে থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত, সেখানে অবৈধ ভাবে দীর্ঘ কয়েক বছর থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান করানো হচ্ছে।

এই বিষয়ে মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি বলেন পল্লবী থানায় যোগাযোগ করতে ওখানে সব শেষ করে নিয়েছে৷

বিষয়টি নিয়ে এলাকার কিছু মুরব্বীদের সাথে কথা হলে উঁনারা যান এইসকল প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানগুলো স্কুলের নামে ব্যবসা করে আসছে মিরপুর নয় সমগ্র দেশব্যাপী এমন ব্যবসায়িক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে সরকারের উচিত সেইসকল প্রতিষ্ঠান গুলো বন্ধ করো তাদের পরিচালকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here